কেউ কি ইবলিশ শয়তান দেখছেন? আমি প্রতিদিনই দেখি : শামীম ওসমান

0
168
কেউ কি ইবলিশ শয়তান দেখছেন? আমি প্রতিদিনই দেখি : শামীম ওসমান

নিজস্ব প্রতিবেদক : নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, আমি সব উন্নয়ন করতে পারবো। কিন্তু একটা জিনিস একা করতে পারবো না। সেটা হলো সন্ত্রাস আর মাদক। কেউ কি ইবলিশ শয়তান দেখছেন? আমি প্রতিদিনই দেহি। ইবলিশ শয়তানও লজ্জা পায় এই হারামজাদা মাদক ব্যবসায়ীদের দেখে। যারা এখানে মাদক বেঁচেন তার মাদক বেঁচা বন্ধ করেন। ভাল হতে চান তো ভাল হয়ে যান। আমার কথা হালকা ভাবে নিয়েন না। আমি এমপি থাকলেও শামীম ওসমান, না থাকলেও শামীম ওসমান। আমার পুলিশ লাগে না। আমার কারো সাহায্য লাগে না। আমি একলাই যথেষ্ট। ভালভাবে বলতেছি যারা আমার সন্তানের ভবিষ্যত নষ্ট করতেছো, আমার বুকের ধনকে নিয়ে যাইতেছো, পয়সা কামানোর জন্য। ও কোন দল করে, আমার বাপ লাগে না ভাই লাগে, না চাচা লাগে, না ছেলে লাগে, আমার কিচ্ছু আসে যায় না আল্লাহর কসম। আমি ছাড় দিবো না। এতে যদি আপনারা সবাই আমার বিপক্ষে যান তাও আমি ছাড় দিবো না।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) ফতুল্লা থানার এনায়েতনগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড এর ফাজিলপুর এলাকায় ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ওরা আমাদের বাচ্চার ভবিষ্যত নষ্ট করে দিচ্ছে, মায়ের বুক থেকে বুকের পাজর কেড়ে নিচ্ছে। যে ছেলেটা ইয়াবা খায় তার আর কিচ্ছু থাকে না। আর যে বাড়িতে খায় সে বাড়িটা দোজখ হয়ে যায়। তো যারা এই মাদক বেঁচতাছোস তোদের উদ্দেশ্যে বলতাছি, আমার নেতাকর্মীরা ওদের সাবধান করে দিয়েন। ভাল হয়ে গেলে কোন দোষ নাই। ভুল করছি মাফ চাই আর কোনদিন করুম না! ঠিক আছে মাফ। আর যদি না করো তাহলে বলতেছি, আমি কিন্তু বাছাই করা পুলিশ নিয়ে আসছি নারায়ণগঞ্জে। কসম আল্লাহর, বন্দুকের গুলি আর তোমার মাথার খুলি বেশি দূরে থাকবে না বলে দিলাম। কারণ তোর বাইচ্চা থাকার কোন অধিকার নাই। ও যেই হোক বাঁচবে না। নারায়ণগঞ্জে মাদক বেঁচতে দিবো না।

শামীম ওসমান আরো বলেন, নারায়ণগঞ্জে নিষিদ্ধ পল্লী ছিল, জিনা হইতো বন্ধ করছি। এইবার মাদকের বিরুদ্ধে এটা করবো। সারা বাংলাদেশেতো পারমু না। তবে আমার এলাকায় মাদক ব্যবসা করা যাবে না। যা কামাইছে মাদক বেঁইচা সব নিয়া নিমু। নিয়া পাবলিকের মধ্যে দিয়া দিমু দরকার পড়লে। বাড়িঘর ৬তলা করছে ৬তলা ভাইংগা দিমু। ছাড়বো না একটারেও।

আপনারা যদি সমর্থন করেন তাহলে সোচ্চার থাইকেন। ভয় পাইয়েন না। কারণ আপনার ভাই শামীম ওসমান। রাস্তার থেকে উঠে আসে নাই। আমার হাতে বড় শক্তি আছে। মাটির বিশ হাত তল থাইকা বাহির কইরালামু। সবাই খালি আমারে খবর দিয়েন। আপনার কথা গোপন রাখমু। শুধু খবর দিয়েন বাকী দ্বায়িত্ব আমার।

এনায়েতনগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মেম্বার ও নির্বাচন কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির আহবায়ক সালাউদ্দিন আহম্মাদ এর সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী চেয়ারম্যান, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভূইয়া সাজনু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, এনায়েতনগর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার বাতেন তালুকদারসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।