ভোলাইলে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

0
20
ভোলাইলে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

ফতুল্লা প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ভাতিজার বাড়ির পাশ থেকে চাচা সিদ্দিক মিয়া (৫৫) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত পরিবারের অভিযোগ লোহার রড পিটিয়ে ও শাবল দিয়ে আঘাত করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা।
১৩ জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ফতুল্লার ভোলাইল গেইদ্দার বাজার এলাকার একটি জমি থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।
নিহত সিদ্দিক ফতুল্লার দেওভোগ মুন্সীবাড়ি এলাকার মৃত ফজর আলী মুন্সীর ছেলে। নিহতের বুকে ও পেটে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
নিহতের মেয়ে স্মৃতি আক্তার জানান, তার মা মাফিয়া বেগম চাকরির উদ্দেশ্যে গত এক বছর পূর্বে ওমান চলে যায়। তারা দুই ভাই এক বোন। তার এক ভাই আরমানের স্ত্রীকে তার বাবা সিদ্দিক মিয়া ভোলাইল গেউদ্দার বাজারস্থ এলাকার তার চাচাতো ভাই শহিদের বাড়ি দেখা শোনা করে এবং সেখানে বসবাস করে। বৃহস্পতিবার সন্ধার সময় শুনতে পাই কে বা কারা তার বাবাকে পিটিয়ে হত্যা করে ফেলে রেখেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পায় শহিদের বাড়ির পাশের একটি বাউন্ডারী করা একটি খালি জায়গায় রক্তাক্ত অবস্থায় তার বাবার লাশ পড়ে আছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। যারা তার বাবাকে হত্যা করেছে তাদের উপযুক্ত বিচার দাবি করেন স্মৃতি আক্তার।
ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, সিদ্দিক মিয়া তার ভাতিজা শহিদ মিয়ার গেইদ্দার বাজার বাড়িতে থাকতো। তার ২ ছেলে ১ মেয়ে রয়েছে নিজ বাড়ি দেওভোগে।
তিনি আরো জানান, ধারনা করা হচ্ছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা সিদ্দিক মিয়াকে মারধর করে হত্যার পর লাশ তার ভাতিজা শহিদ মিয়ার বাড়ির পাশে একটি জমিতে ফেলে রেখেছে। তবে আশপাশের কেউ হত্যা করতে বা লাশ ফেলে রেখে যেতে দেখেনি। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত চলছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে। লাশ শহরের জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সন্ধা ৭ টার দিকে ফতুল্লার ভোলাইল গেদ্ধারবাজার এলাকাস্থ জনৈক শহিদের মালিকানাধীন খালি জায়গা হতে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত সিদ্দিক ফতুল্লার দেওভোগ চাচার দোকান এলাকার মৃত ফজর আলী মুন্সির ছেলে। সে ভোলাইল গেদ্দারবাজারস্থ তার ভাতিজা শহিদের ক্রয়কৃত জমিতে পরিবার নিয়ে বসবাস করে।