টিটুর বিরুদ্ধে হীন যড়যন্ত্রের প্রতিবাদ ও শাস্তি দাবীতে ৮ জাতীয় ক্রিকেটার

0
108

নিউজ নারায়ণগঞ্জ ডট নেট :  ক্রীড়া সংগঠক ও ক্রীড়ামোদি তানভীর আহমেদ টিটু’কে জড়িয়ে মদ ব্যবসায়ীদের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে চিহিৃত করার সংবাদ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদ আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। আমরা থাইল্যান্ডে অবস্থান করে এ ধরনের মিথ্যা সংবাদ দেখে হতবাক হয়েছি।
ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ হিসেবে আমরা তানভীর আহমেদ টিটুর সঙ্গে সূদীর্ঘ কাল ধরে একসঙ্গে বসবাস করে আসছি। আমাদের দীর্ঘ সময়ের সম্পর্কের মধ্যে অদ্যাবদি পর্যন্ত তার মধ্যে এ ধরনের কোন প্রকার আগ্রহ কিংবা একটি সিগারেট খেতেও আমরা দেখিনি। সেখানে কি কারণে তাকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মেরী এন্ডারসনের মদ ব্যবসায়ে জড়িত গ্রেফতারকৃতদের সঙ্গে টিটুকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে তা আমাদের বোধগম্য নয়। আমরা এহেন হীন, উদ্দেশ্যমুলক, সম্মানহানিকর ও পারিবারিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার যড়যন্ত্রের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। সেই সঙ্গে আমরা মনে করি একজন সফল ক্রীড়াঙ্গনের মানুষের বিরুদ্ধে এ ধরনের নোংরা যড়যন্ত্র বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের প্রতি হুমকি স্বরুপ।
তানভীর আহমেদ টিটুর বিরুদ্ধে এ হীন যড়যন্ত্রে জড়িতদের চিহিৃত করে এদের বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করছি। এ ব্যাপারে ক্রীড়াঙ্গনের সকলকে এ ধরনের যড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানানোর আহবান জানাচ্ছি। এ বিষয়ে ক্রীড়া বান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

টিটুর বিরুদ্ধে হীন যড়যন্ত্রের প্রতিবাদ ও শাস্তি দাবীতে ৮ জাতীয় ক্রিকেটার

শুক্রবার ৫ এপ্রিল ওই বিবৃতি দেন সাবেক অধিনায়ক ও সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয়, সাবেক অধিনায়ক ফারুক হোসেন, আতাহার আলী খান, আকরাম খান, হাবিবুর বাশার সুমন, খালেদ মাসুদ পাইলট, সুজন, শাহরিয়ার আহমেদ বিদ্যুৎ।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি ফারুক বিন ইউসুফ পাপ্পু বিবৃতি প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘এখন শুধু ৮জন জাতীয় ক্রিকেটার বিবৃতি দিয়েছেন। এর সংখ্যা ক্রমশ বাড়বে। শুধু ক্রিকেট না ক্রীড়াঙ্গনের সকলের সঙ্গে টিটুর সম্পর্ক রয়েছে। তাঁরা নিজেরাও টিটু সম্পর্কে প্রশাসনের এমন বক্তব্যে মন্তব্যে হতবাক। জাতীয় দলের এক সময়ের ঝান্ডা বহন করা এসব দেশসেরা ক্রিকেটাররা এও বলেছেন অচিরেই এর সুরাহা উচিত ও প্রশাসনকে ভুল স্বীকার করতে হবে। নতুবা প্রয়োজনে তাঁরা রাস্তায় নামবেন।’

নারায়ণগঞ্জ চেম্বারের পরিচালক টিটু বর্তমান থাইল্যান্ডে আছেন ক্লাবের একটি ক্রিকেট টিমের সঙ্গে। গত ১ এপ্রিল মদ বিয়ার উদ্ধারের পর সংবাদ সম্মেলন ও বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ জানান, তানভীর আহমেদ টিটুর সহযোগিতায় নারায়ণগঞ্জ ক্লাব সহ বিভিন্ন জায়গা হতে অবৈধভাবে মদ ও বিয়ার এনে মেরি এন্ডারসনে বিক্রি হতো।

এ ব্যাপারে টিটু গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের টিম নিয়ে থাইল্যান্ডে খেলতে এসেছি। বিষয়টি আমি ওভার টেলিফোনে শুনে হতবাক হয়েছি। মেরি অ্যান্ডারসনের সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক অতীতেও ছিল না বর্তমানেও নেই। সঞ্জয় রায়ের সঙ্গে আমার কোনো ব্যবসায়িক লেনদেনও নেই। অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ। আমার সঙ্গে কারো বিরোধও নাই। শামীম ওসমানের শ্যালক হওয়াটা বোধহয় আমার অপরাধ। সে কারণেই বোধহয় মিথ্য, বানোয়াট ও বিশেষ কোন উদ্দেশ্যে রচয়িত করা হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here