শীঘ্রই কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম জিয়াকে মুক্ত করা হবে – জয়নুল আবেদীন

0
14
শীঘ্রই কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম জিয়াকে মুক্ত করা হবে - জয়নুল আবেদীন

স্টাফ রিপোর্টার : সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে দায়ের করা মামলায় দেড় বছর ধরে সাজা খাটছেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। কোন প্রমাণ নেই, তারপরও এসকল মামলায় সাজা ভোগ করতে হচ্ছে, এটা শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই হচ্ছে। আইনজীবীসহ সকল নেতাকর্মীদেরকে প্রস্তুত থাকতে বলে জয়নুল আবেদীন বলেন, কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে বাধ্য করা হবে বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে। আর সেই লক্ষ্যে শীঘ্রই কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে বলেও জানান তিনি।
গতকাল সোমবার বাদ আছর নতুন কোর্টের বিপরীত পাশে হিমালয় চাইনিজ রেষ্টুরেন্টে জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন ।
তিনি আরো বলেন, শীঘ্রই যে কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে, তাতে নারায়ণগঞ্জের আইনজীবীরা পিছিয়ে থাকবে না বলে তিনি আশাবাদী। তিনি বলেন, বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত ৩৭ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। একটি মামলায় জামিন করা হলে, সরকার প্রতিহিংসার বশবতী হয়ে নতুন আরেকটি মামলা দায়ের করে। এটা বড়ই দুঃখজনক বিষয়।
তিনি বলেন, বেগম জিয়ার মনোবল অনেক দৃঢ়, অনেক শক্ত। বেগম জিয়া আমাকে বলেছেন, এই সরকার আমাকে খুব বেশীদিন আটকে রাখতে পারবে না। একদিন সারাদেশের মানুষের তীব্র আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার আমাকে মুক্ত করতে বাধ্য হবে।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ব্যারিষ্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল বিএনপি, সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। আর তাই বেগম জিয়া সরকারের প্রতিহিংসার শিকার। সরকারী দল জানে বেগম জিয়া বের হলে এই সরকারের পতন হবে। আর এ কারণেই জামিন নিতে গেলেও সরকার বাধা দেয়। অথচ সরকারী দলের লোকেরা খুব সহজেই যে কোন মামলায় জামিন পেয়ে যায়। এক দেশে দুই আইন চলতে পারে না।
তিনি আরো বলেন, এই রোজার মাসে আল্লাহ যেন সরকারী দলের লোকদের হেদায়েত দান করেন। তারা যেন মিথ্যা কথা বলা বন্ধ করে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এডঃ সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, আমরা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই এবং এ কাজে সবচেয়ে বড় ভুমিকা আইনজীবীদের। যারা বাধা সৃষ্টি করছে, তারা দলের ক্ষতি ছাড়া আর কিছুই চায় না।
তিনি আরো বলেন, এদেশে গণতন্ত্র নেই, জনগনের ভোটাধিকার নেই। কোন কারণ ছাড়াই বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে নির্বিচারে মামলা দেয়া হচ্ছে। তিনি সকলের প্রতি আহ্বান রেখে বলেন, আসুন গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে, দেশের মানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তুলি।
আলোচনা সভা শেষে বেগম জিয়ার মুক্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।
জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি এড. সরকার হুমায়ন কবিরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এড. খোরশেদ আলম মোল্লার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা আইনজীবী ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি এডঃ আজিজুর রহমান হান্টু, এডঃ সিদ্দিকুর রহমান, এডঃ আলামিন সিদ্দিকী আগুন, এডঃ সালাউদ্দিন সবুজ, এডঃ ফজলুর রহমান ফাহিম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী এডঃ আকতার, এডঃ মশিউর রহমান, এডঃ শিমুল বিশ্বাস, জেলা আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড. আনোয়ার প্রধান, এড. আবুল কালাম আজাদ জাকির, এড. জিল্লুর রহমান মুকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক, এড. আলম খান, এড. আলামীন সিদ্দিকী, সহ সাংগঠনিক এড. ইকবাল আহমেদ মানিক, জেলা যুব আইনজীবী ফোরামের সভাপতি এড. শেখ আঞ্জুম আহমেদ রিফাত, সাধারণ সম্পাদক এড. রাসেল মিয়া প্রমুখ।