দুই বোনকে গণধর্ষণ মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

0
29
দুই বোনকে গণধর্ষণ মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক  : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় দুই বোনকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৫জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছে নারায়ণগঞ্জের একটি আদালত। রায়ে দন্ডিত প্রত্যেককে ১লাখ টাকা করে অর্থদন্ডের আদেশ দেন বিচারক। মামলা থেকে খালাস পেয়েছেন নুরুল ইসলাম নামে একজন। মঙ্গলবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ শাহীন উদ্দিন এ রায় প্রদান করেন। ২০১০ সালের ২৮ মে ঘটনার ৮ বছর পর আলোচিত এই মামলার রায় ঘোষিত হলো। ধর্ষকরা প্রভাবশালী হওয়ায় আলোচিত ওই ঘটনায় তখন নারায়ণগঞ্জ মহিলা পরিষদ থেকে ধর্ষিতাদের পক্ষে আইনী সহায়তা দেওয়া হয়।
রায় ঘোষণার সময় মামলার প্রধান আসামী শাহআলম উপস্থিত ছিলেন। দন্ডপ্রাপ্ত শাহআলম সোনারগাঁও উপজেলার মঙ্গলেরগাঁও এলাকার মৃত হযরত আলীর ছেলে। দন্ডপ্রাপ্ত অপর ৪ আসামী পলাতক ছিল। দন্ডিত অপর আসামীরা হলো, একই গ্রামের আবদুল খালেকের তিন ছেলে খোকন, এমদাদ ও ইকবাল এবং হাবিব উল্লার ছেলে জিয়া।
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর রকিব উদ্দিন বলেন, ধর্ষণের শিকার দুই বোন পরিবার নিয়ে এক সময়ে সোনারগাঁয় বসবাস করতো। ২০০৮ সালে পরিবারের লোকজন ওই জমি বিক্রি করে লালমনিরহাট চলে যায়। ২০১০ সালের ২৮ মে দুই বোন তার চাচার সঙ্গে সোনারগাঁয়ের শান্তিনগর এলাকায় ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সেদিন রাতে চাচাসহ দুই বোনকে রাস্তা থেকে তুলে একটি বাগানে নিয়ে যায় ধর্ষকরা। পরে চাচাকে বাগানের একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে দুই বোনকে গণধর্ষণ করে আসামীরা। এক পর্যায়ে চাচার সঙ্গেই দুই বোনকে গাছে বেঁধে তাদের নগ্ন ছবি তুলে উল্টো ১০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় আসামীরা। ওই ঘটনায় সোনারগাঁও থানায় ৬জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের শিকার এক বোন বাদি হয়ে সোনারগাঁও থানায় মামলা দায়ের করে।
মামলায় রাষ্ট্রপক্ষকে সহায়তা করেন মহিলা পরিষদের নিযুক্ত আইনজীবী অ্যাডভোকেট জিয়া হায়দার ডিপথী। রায় ঘোষণার সময় আদালতে জেলা মহিলা পরিষদের সভানেত্রী লক্ষ্মী চক্রবর্তী, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসিনা পারভীন, লিগ্যাল এইড সম্পাদক সাহানার বেগমসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here