সোনারগাঁয়ে ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ পুলিশ সদস্যের লাশ উদ্ধার

0
53
সোনারগাঁয়ে ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ পুলিশ সদস্যের লাশ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার : সোনারগাঁয়ে মেঘনা নদীতে প্রবল ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পিএসআই সেলিম মিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (৩ এপ্রিল) সকালে সাড়ে ৯টায় দিকে বন্দর উপজেলার ধলেশ্বরী এলাকায় নদীর মোহনা থেকে লাশ উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

গোপালগঞ্জ জেলার গোপিনাথপুর গ্রামের ইয়ার আলী শেখের ছেলে ও জেলা পুলিশের টিএসআই নিহত সেলিম মিয়া ছিলেন একজন ভিন্নধর্মী পুলিশ সদস্য। তার নামাজের জানাযা দুপুর ২টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ লাইনে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

নির্বাচনী দিন তিনি চরহোগলার চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় পুলিশ অফিসারের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

জানা গেছে, গত রবিবার উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের চরহোগলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দায়িত্ব পালন শেষে প্রিজাইডিং অফিসার, পুলিশ ও আনসার সদস্যসহ ২২ জন একটি ট্রলারযোগে উপজেলায় আসার পথে মেঘনা নদীতে তাদের ট্রলারটি ঝড়ের কবলে পড়ে ডুবে যায়। এ সময় প্রিজাইডিং অফিসার ও ইউনাইটেড কমার্সিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) মেঘনাঘাট শাখার ব্যবস্থাপক বোরহান উদ্দিন, নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের টিএসআই সেলিম মিয়া ও নারী আনসার সদস্য রিতা আক্তার নিখোঁজ হন। পরে সোমবার সকালে চরহোগলা এলাকায় মেঘনা নদী থেকে নারী আনসার সদস্য রিতা আক্তারের লাশ, মঙ্গলবার বিকালে মেঘনা নদীর মোহনা থেকে প্রিজাইডিং অফিসার বোরহান উদ্দিনের লাশ উদ্ধার করা হয়। বুধবার সকালে সকালে মেঘনা নদীর মোহনায় একজন পুরুষের লাশ নদীর পাশে ভাসতে দেখে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে সংবাদ দেয়। পরে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ডুবুরী দল বুধবার সকালে বন্দর উপজেলার ধলেশ্বরী এলাকায় ৩ নদীর মোহনায় নদীর পাড় থেকে নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পিএসআই সেলিম মিয়ার লাশটি উদ্ধার করে। এ ঘটনার খবর পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ,বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং স্বজনরা পোষাক পরিহিত সেলিম আহমেদের লাশ বলে শনাক্ত করেন।